Ultimate magazine theme for WordPress.

কঠোর লক ডাউনে সদস্যর পাশে ব্র্যাক- নর্থওয়েষ্ট ডিভিশনের আওতাধীন বগুড়া, সিরাজগঞ্জ ও নওগাঁ জেলার আওতাধীন পাঁচটি অঞ্চলে ২৯০ জন সদস্যাকে বিকাশের মাধ্যমে ১৬ লক্ষ ২৪ হাজার টাকা সঞ্চয় ফেরত দেওয়া হয়।

187

 

গত ১ জুলাই ২০২১ হইতে সরকারের দেওয়া বিধি-নিষেধ অনুযায়ী সারাদেশে সর্বাত্বক লকডাউন শুরু হয়। সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী সরকারী ও বেসরকারি অফিস বন্ধ আছে। সে অনুযায়ী বিশ্বের এক নম্বর এনজিও ব্র্যাকের কার্যক্রম ও বন্ধ আছে বিশেষ করে সদস্যদের মাঝে ঋণ বিতরন ও সঞ্চয় ফেরত বন্ধ আছে। দীর্ঘদিন এই কার্যক্রম বন্ধ থাকায় গ্রামীন অর্থনীতিতে প্রভাব পড়েছে। বিশেষ করে কিছু সদস্য চিকি९সা ও কৃষিকাজ এবং কোরবানীর জন্য তাদের পাশবইয়ে থাকা সঞ্চয় উত্তোলন করে এ সব সমস্যার সমাধান করে থাকে। এই মহামারীর সময়ে ব্র্যাক সব সময় তাদের ভালো মন্দের খোজ খবর মোবাইল ফোনের মাধ্যমে রাখছে এবং প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিচ্ছে।
এমত অবস্থায় সদস্যগন তাদের অর্থনৈতিক দুরাবস্থা কাটানোর জন্য সঞ্চয় ফেরতের আবেদন করেন। ব্র্যাক তাদের অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে বগুড়া, সিরাজগঞ্জ এবং নওগাঁ জেলার আওতাধীন পাঁচটি অঞ্চলের ৬৬ টি শাখায় ২৯০ জন সদস্যর মাঝে ১৬ লক্ষ ২৪ হাজার টাকা গত ১৩ জুলাই ২০২১ ইং তারিখে সদস্যদের নিজস্ব বিকাশ ওয়ালেট নাম্বারের মাধ্যমে প্রেরণ করা হয়। সদস্যগণ এই দুর্যোগ কালিন সময়ে অফিস বন্ধ থাকা অবস্থায় সঞ্চয় ফেরত পেয়ে অনেক খুশি এবং ব্র্যাকের প্রতি কতৃজ্ঞতা প্রকাশ করে।
এ ব্যাপারে ব্র্যাক মাইক্রোফাইন্যান্স বগুড়া অঞ্চলের আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক মোঃ রফিকুল ইসলাম জানান, ব্র্যাক করোনাকালীন মহামারী সময়ে সদস্যদের পাশে আছে এবং সবসময় পাশে থাকবে। এই লকডাউন যদি আরও দীর্ঘ হয় তাহলে বিকাশের মাধ্যমে সদস্যদের সঞ্চয় ফেরত এর কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।
এছাড়া ব্র্যাক মাইক্রোফাইন্যান্স নর্থ ওয়েষ্ট ডিভিশনের ডিভিশনাল ম্যানেজার কে এ রহমান বলেন, ব্র্যাক গত ২০২০ সালের মার্চ ও এপ্রিল মাস জুড়েই বিকাশে সঞ্চয় ফেরত দিয়েছিলো এবার ও সদস্যদের অর্থনৈতিক দুর্যোগ লাঘবের জন্য নর্থওয়েষ্ট ডিভিশন সহ দেশের সকল জায়গায় সঞ্চয় ফেরত কার্যক্রম অব্যাহত আছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.