Ultimate magazine theme for WordPress.

জেলের সাজা হতে পারে মেসির!

817

মুক্তি মিলেও মুক্তি আসলে মিলল না। লিওনেল মেসিকে দায়মুক্তি দেওয়ার আবেদন করা হলেও আদালত তা নাকচ করে দিলেন। কর বিভাগের পক্ষে লড়াই করা মামলার আইনজীবীরাই অভিযুক্তের তালিকা থেকে বাদ দেওয়ার আবেদন করেছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছিল মেসি অব্যাহতি পেতে চলেছেন। কিন্তু আজ স্পেনের আদালত রায় দিলেন, মেসির বিরুদ্ধেও মামলা চলবে। যে মামলায় এই ফুটবল তারকার ২২ মাসের জেলের সাজা হতে পারে।
২০০৭ থেকে ২০০৯ পর্যন্ত ৪০ লাখ ইউরো কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগে মেসি ও তাঁর বাবার বিরুদ্ধে স্পেনের আদালতে মামলা প্রক্রিয়া​ধীন আছে। এর আগে মেসির আইনজীবীরা এই মামলা থেকে বার্সা তারকাকে অব্যাহতি দেওয়ার আবেদন জানিয়ে আরজি করেছিল, মেসির বাবাই তাঁর সব ধরনের আর্থিক বিষয় দেখাশোনা করে। মেসি শুধু সইটা করেন। চুক্তিপত্রও পড়ে দেখার সময় তাঁর নেই। প্রয়োজনও অনুভব করেননি। মেসির পক্ষ থেকে সুদসহ ওই বকেয়া করের পুরোটা পরিশোধও করা হয়।
তখনো  আদালত মামলা থেকে আর্জেন্টিনা অধিনায়ককে মুক্তি দেননি। এরপর মেসির জন্য আশার আলো হয়ে দেখা দেয় কদিন আগের একটি সিদ্ধান্ত। এবার আর মেসির আইনজীবী নয়, বাদী পক্ষের আইনজীবীই মেসিকে দায়মুক্তি দেওয়ার আরজি জানান। কিন্তু আজ আদালত বলেছেন, মেসি এবং তাঁর বাবা দুজনের বিরুদ্ধেই মামলা চলবে। আদালত তাঁর পর্যবেক্ষণে বলেছেন, ‘অভিযুক্ত দুজনই যে অপরাধ সংগঠন করেছেন, তার সুস্পষ্ট ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে।’
সেই মামলার তারিখ অবশ্য এখনো নির্ধারিত হয়নি।
তবে আশার কথা হলো, এই মামলায় জেলের সাজা হলেও আপাতত মেসি বা তাঁর বাবা কাউকেই জেল খাটতে হবে না। স্পেনের আইন অনুযায়ী দুই বছরের কম সময়ের জন্য কেউ প্রথমবারের মতো সাজাপ্রাপ্ত হলে তাঁর সেই সাজাটি স্থগিত সাজা (সাসপেন্ডেড) হিসেবে থাকে। অর্থাৎ​ পরবর্তীকালে একই ধরনের অপরাধ না করা পর্যন্ত এই সাজা ভোগ করতে হয় না। সূত্র: এএফপি ও বিবিসি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.