Ultimate magazine theme for WordPress.

টিএমএসএস পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজে শিক্ষার্থীদের মাঝে বক্তব্য রাখেন – এস.এম বদিউজ্জামান।

294

সোমবার দুপুরে শহরের জয়পুরপাড়া টিএমএসএস পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজে শিক্ষার্থীদের মাঝে বক্তব্য রাখেন সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এস.এম বদিউজ্জামান। এসময় উপস্থিত ছিলেন টিএমএসএস এর নির্বাহী পরিচালক ড. হোসনে আরা বেগম।

দ্রুত ভাত খেয়ে নাও নইলে পুলিশ আসবে, তাড়াতাড়ি ঘুমাও না হলে পুলিশ ধরে নিয়ে যাবে ছোট থেকেই মা কিংবা অভিভাবকেরা বর্তমান সমাজের প্রেক্ষিতে এমন সব কথা বলেই শিশুদের মানানোর চেষ্টা করে। যার কারণে শিশু অবস্থা থেকেই সকলের মাঝে পুলিশভীতি তৈরি হয়ে যায়। পুলিশকে ভয় নয় বন্ধু ভাবুন এমন চিন্তা-চেতনায় ভবিষ্যৎ প্রজন্ম যেন কোনভাবেই বিপদগামী না হয় এবং তাদের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে নৈতিক মূল্যবোধের বিকাশে বগুড়ায় যোগদানের পর থেকেই বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্লাসের ফাঁকে ফাঁকে শিক্ষার্থীদের সাথে জনবান্ধব পুলিশিং কার্যক্রম এবং পুলিশভীতি কাটিয়ে সর্বদা সহযোগিতাপূর্ণ মনোভাব গঠনের লক্ষ্যে ছুটে চলেছেন বগুড়া সদর থানার ব্যতিক্রমী অফিসার ইনচার্জ এস.এম বদিউজ্জামান।

২০১৮ সালের ১২ই মে বগুড়া সদর থানায় যোগদান করে তার ১৯ মাস সদরে কর্মসময়ে মোট ১০ বার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ নির্বাচিত হওয়া এই কর্মকর্তা থানার দাপ্তরিক কাজের ফাঁকে এখন পর্যন্ত স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসা মিলিয়ে প্রায় ২০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৫ হাজারেরও বেশী শিক্ষার্থীদের তার এই ব্যতিক্রমী চিন্তা চেতনায় সামিল করেছেন ওসি সদর থানা। যার দরুণ সদর থানার এই কর্মকর্তা বগুড়ায় শিক্ষার্থীদের কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়েছেন ‘ওসি আংকেল’ নামে। সর্বশেষ সোমবার দুপুরে শহরের জয়পুরপাড়া টিএমএসএস পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজে ৫ শতাধিক শিক্ষার্থীদের ক্লাসের ফাঁকে তিনি অবহিত করেছেন ইতিবাচক পুলিশিং কার্যক্রম সম্পর্কে। সভায় ওসি বদিউজ্জামান শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, শিক্ষার পাশাপাশি নিজেকে প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। নিজের পিতা-মাতার দোয়া নিয়ে এবং গুরুজনদের সম্মান প্রদর্শনের মাধ্যমে জীবনের প্রতিটি সিঁড়ি আত্মবিশ্বাসের সাথে জয় করতে হবে।

সভায় তিনি বড় সাদা বোর্ডে ‘ওসি আংকেল’ এবং তার মোবাইল নম্বর লিখে দিয়ে ইভটিজিং, বাল্যবিবাহ এবং মাদকের সাথে যুক্ত ব্যক্তিদের তথ্য প্রদান করতে আহ্বান জানান।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.