Ultimate magazine theme for WordPress.

দুঃস্থ মানুষরা ত্রাণ না পেয়ে চেয়ারম্যান-মেম্বরের অপসারণ দাবিতে গাইবান্ধার কুপতলায় মানববন্ধন

234

গাইবান্ধা প্রতিনিধি ঃ প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের দুর্যোগে কর্মহীন ঘরে বসা থাকা অসহায় দুঃস্থ মানুষরা ত্রাণ না পেয়ে কুপতলা ইউপির চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক ও মেম্বর কামরুল ইসলামের অপসারণ দাবিতে রোববার গাইবান্ধা সদর উপজেলার কুপতলা ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুর-সুন্দরগঞ্জ সড়কের ৭৫নং রেলগেট এলাকায় এক মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। স্থানীয় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসির উদ্যোগে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার প্রায় ৫ শতাধিক মানুষ অংশ নেয়। পরে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ খান মো. শাহরিয়ার সহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে। বিক্ষুব্ধ লোকজনদের ত্রাণের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে ত্রাণ প্রাপ্তির বিষয়টি সম্পর্কে বিক্ষুব্ধ লোকদের আশ্বস্ত করলে লোকজন মানববন্ধন শেষ করে বাড়ি ফিরে যায়।
মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন সাদেক আলী, বাবু প্রামানিক, তারাজুল ইসলাম, মো. সাকা মিয়া, আবু সাঈদ, রফিক মিয়া, আব্দুর রউফ, তাজুল ইসলাম, হারুন চৌধুরী, নুরুল ইসলাম প্রমুখ। বক্তারা জানান, করোনা ভাইরাসের প্রায় দেড় মাস অতিবাহিত হলেও আজ পর্যন্ত তারা এক কেজি চাল পর্যন্ত্র ত্রাণও পায়নি। তারা বিভিন্ন পত্রপত্রিকা, টেলিভিশন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দেখে আসছি বর্তমান সরকার এই দুর্যোগের সময় ঘরে বসে থাকা কর্মহীন অসহায় মানুষদের নানা রকম সাহায্য সহযোগিতা করে আসছেন। কিন্তু আমাদের এই কুপতলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক ও ৩নং ওয়ার্ডের মেম্বর কামরুল ইসলাম ত্রাণ সামগ্রী তুলে তারা নিজেরাই আত্মসাৎ করে আমাদেরকে ত্রাণ পাওয়া থেকে বঞ্চিত করছেন। বক্তারা আরও বলেন, ইতোপূর্বে তাদের কাছ থেকে ৩/৪ বার আইডি কার্ডের ফটোকপি নিয়েও আজ পর্যন্ত এই এলাকায় একজন ব্যক্তিকেও কোন ত্রাণ দেয়া হয়নি। তাই বক্তারা উক্ত চেয়ারম্যান-মেম্বরদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও তাদের অপসারণ দাবি করেন এবং এই অসহায় মানুষদেরকে সেনাবাহিনীর মাধ্যমে জরুরী ভিত্তিতে ত্রাণ সামগ্রী দেয়ার জন্য অনুরোধ করেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.