Ultimate magazine theme for WordPress.

পলাশবাড়ীতে রাস্তার খাদে ট্রাক উল্টে সড়ক দুর্ঘটনা : শিশুসহ ১৩ জনের লাশ উদ্ধার

197

এস আই হাবিব উপজেলা প্রতিনিধি ঃ
পলাশবাড়ী(গাইবান্ধা): পলাশবাড়ীর পৌরশহরের অদূরে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের দুবলাগাড়ী নামক স্থানে রড বোঝাই ট্রাক উল্টে মারাত্মক সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে।
পুলিশ শিশুসহ ১৩ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে। বুধবার ঝড়ের রাতের যে কোন সময় দুর্ঘটনাটি ঘটে থাকতে পারে বলে পুলিশ জানায়। এসময় ঝড়ো হাওয়ার সাথে তুমুল বাতাসের ধাক্কায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি রড বোঝাই ট্রাক রাস্তার পশ্চিম পাশের খাদে উল্টে যায়।
বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে প্রথমতঃ পুলিশ দুর্ঘটনাস্থলে এসে শুধু ট্রাকটি উদ্ধার করে নিয়ে যায়। এদিকে পরবর্তিতে দ্বিতীয় দফায় দুপুর ১২টার দিকে পুলিশ দুর্ঘটনাস্থলে এসে উল্টে যাওয়া রড বোঝাই ট্রাকটির ওইস্থানে পানির নিচ থেকে ৩ শিশুসহ ১৩ জনের লাশ উদ্ধার করে। পলাশবাড়ী থানা পুলিশ,হাইওয়ে পুলিশ,গাইবান্ধা এবং গোবিন্দগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস টিমের সদস্যরা সম্মিলিত ভাবে উদ্ধার তৎপরতা কাজে অংশ নেয়। উদ্ধার করতে এসে এসময় উদ্ধার কাজে নিয়োজিত টিম ৩ শিশুসহ ১৩ জনের লাশ উদ্ধার করে। প্রত্যদর্শি ও হাইওয়ে পুলিশ সূত্র আরো জানায়, বুধবার রাতের কোন এক সময় ঢাকা থেকে রংপুর অভিমুখে আসা রড বোঝাই ট্রাকটি (ঢাকা-মেট্রো-ট-১৩-৫৬৯৮) ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের দুবলাগাড়ী নামক ওইস্থানে রাতে যেকোন সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার সকালে উদ্ধার কাজে নিয়োজিত টীম উদ্ধার কাজ চলাকালে পানির নিচ থেকে রডগুলো উপরে তোলার সময় একের পর এক মরদেহ গুলো দেখতে পান। পরে সেখান থেকে তিন শিশুসহ ১৩ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। পলাশবাড়ী থানা অফিসার ইনচার্জ মাসুদুর রহমান মাসুদও গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ আব্দুল কাদের জিলানী জানান, দূর্ঘটনা কবলিত স্থান হতে রডের নিচ থেকে এসব লাশ উদ্ধার করা হলেও তাদের নাম ঠিকানা সম্পর্কে এখনো নিশ্চিত বা কোন তথ্য মেলেনি। তারা জানান রড বোঝাই ট্রাকের উপর এসব যাত্রীদের নিয়ে ট্রাকটি গন্তব্যের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। এসময় পুলিশের চোঁখকে ফাঁকি দেয়ার মানসে ট্রাক চালক ও হেলপার যাত্রীদের শক্ত ত্রিপল দিয়ে ঢেকে নেন। যখন ট্রাকটি উল্টে যায় তখন রডের উপর এবং ত্রিপলের নিচ থেকে এরা বের হবার আপ্রাণ চেষ্টা করেও বেরিয়ে আসতে পারেনি বলে জানা যায়। উদ্ধারকৃত ট্রাকসহ মরদেহ সমূহ গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ি হেফাজতে নেয়া হয়েছে। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত উদ্ধারকৃত মরদেহ গুলোর পরিচয়সহ তাদের স্বজনদের কোন খোঁজ-খবর মেলেনি। এদিকে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক মো.আবদুল মতিন দূর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।এসময় তিনি নিহতদের মরদেহ সৎকারে প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা দেয়ার ঘোষণা দেন বলে জানা যায়।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com