Ultimate magazine theme for WordPress.

পলাশবাড়ীর নুরপুরে বৃহৎ ষাড়টিকে দেথতে মানুষের ভীর লেগেই থাকে

153

 

মাসুদ রানা,পলাশবাড়ী,(গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার পলাশবাড়ী পৌরশহরের নুরপুর বাড়ইপাড়া গ্রামে বেড়ে উঠছে ২২ মন ওজনের বৃহৎ এটি ষাড়। এ ষাড়টিকে একনজর দেখতে মানুষের ভীড় গেলেই থাকে।

সাবেক ইউপি সদস্য ও বর্তমানে পলাশবাড়ী পৌরসভার সদস্য খায়রুল ইসলাম ও তার সহধর্মীনি নুপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা আনোয়ারা বেগমের আদর-যত্নে বেড়ে উঠছে ষাড়টি।

আদরের ভাতিজা ইউসুফ আলী মন্ডলের নামানুসারে প্রিয় ষাড়টিকে ইউসুফ বলে ডাকেন ওই দম্পতি।

খাইরুল ইসলাম জানান, আমি স্বপ্নেও কোনদিন ভাবিনি আমার ঘরে-খামারে এমন একটি ষাড় আসবে। স্থানীয় এক ডাক্তারের পরামর্শে আমার একটি দেশী গাভীতে উন্নতজাতের ব্রাহামা বীজ দেওয়া হয়। পরের বছরের কোন একদিন গাভীটি ব্রাহামা জাতের এঁড়ে বাছুরটি প্রসব করে। সেদিন আমার ঘরে আনন্দের সীমা ছিল না।

তখন থেকে অতি আদরযত্নে তিলে তিলে বাছুরটি বড় করে তুলেছি। আজ তার বয়স ত্রিশ মাস। ওজন ৮৫০ কেজি।

তিনি আরো জানান, আমি একজন জনপ্রতিনিধি। মানুষের সেবায় ব্যস্ত থাকতে হয়। সে কারণে স্কুল শুরুর আগে ছুটির পরে আমার স্ত্রী ষাড়টির আদর যত্নে বড় করে তুলতে বেশী।ভূমিকা রেখেছে।

ষাড়টির খাবারেরর বিষয়ে তিনি জানান, বর্তমানে ষাড়টিকে প্রতিদিন ৪ কেজি খাবার দেওয়া হয়। এরমধ্যে রয়েছে ভূষি ও ছোলা। তবে, অন্যান্য ষাড়ের মত এটিকে কলা বা অন্যান্য ফল খেতে দিলেও ষাড়টি খায় না বলে তিনি জানান।

বর্তমানে ষাড়টিকে নিয়ে তার পরিকল্পনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, বিষয়টি আমার জন্য অনেক কষ্টের হলেও ভাল দাম পেলে আমি ষাড়টিকে বিক্রি করে দিব। এ ব্যাপারে আগ্রহী ক্রেতাদের তার ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বরে (০১৭২৯৬১৪৯৫৩) যোগাযোগ করতে বলেছেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com