Ultimate magazine theme for WordPress.

বগুড়ার কাহালু পরক্রিয়া প্রেমের বাধা দেওয়ায় স্ত্রী কে আগুন পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা

284
নামুজা (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ গত ৩০জুন মঙ্গলবার সকালে বগুড়ার কাহালু উপজেলার জৈতুল দক্ষিণপাড়া গ্রামে স্বামী পরকিয়া প্রেমের বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা।
এলাকাবাসি,পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে কাহালু উপজেলার পাইকড় ইউপির খিয়ার ভূগইলগ্রামের মোঃ আব্দুর রহমানের কন্যা মোছাঃ রুজিনা বেগুমের গত পনর বছর পূর্বে, একই উপজেলার কাহালু সদর ইউনিয়নের জৈতুল গ্রামে মোঃ মোজাম্মেল হকের ছেলে আবুল কালাম এর সাথে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের বিবাহ হয়। উভয় ঘর সংসার করা কালে তাদের ঘরে জম্মনেয় একটি ছেলে সানিবাবু (১২) একটি মেয়ে কুসুম খাতুন (৪) সংসার চালানোর তাগিদে বগুড়া তার নিকটতম আত্মীয় দোকানে চাকুরি নেয় আবুল কালাম সপরিবারে একটি ভাড়া বাসায় থাকেন।
চাকুরি করাকালীন সময়ে অন্য এক বাসার এক মেয়ের সাথে আবুল কালামের অবৈধ সম্পর্ক গড়ে উঠে সময় অসময় ওই মেয়ের বাসায় আত করতো।
স্থানীয় লোকজন ঘটনাটি জেনে আবুল কালাম কে একদিক হাতেনাতে ধরে উত্তম-মধ্যম দেয়।
উক্ত ঘটনাটি তার নিকটতম আত্মীয় জেনে মানসম্মানের ভয়ে তাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করেন, আবুল কালামের চাকুরি বাসা ছেড়ে দিয়ে গ্রামবাড়ি জৈতুল চলে আসেন। বাসা ছাড়লে কি হবে,
আবুল কালাম অবৈধ সম্পর্ক ছাড়তে নাই গোপনে মোবাইল ফোনে কথাবার্তা বলতো এবং দু একদিন পর পরই আবুল কালাম বাহিরে রাত্রি যাপন করতো। স্ত্রী রুজিনা স্বামীর ঘটনাটি জেনে নিষেধ করলে তার উপর চলতো পাশবিক নির্যাতন।
স্ত্রী রুজিনা দুটি সন্তানের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে নির্যাতন নিরবেসহ্য করে আসছে,।
পরকিয়া প্রেমের বাধ হওয়ায় গত ৩০ জুন মঙ্গলবার সকালে প্রতিবেশী লোকজন ঘুম থেকে উঠার আগেই আবুল কালাম পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে স্ত্রী রুজিনার গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়,আগুল দ্রুত রুজিনার শরিরে জ্বালিয়ে উঠলে তার ডাকচিতকারে প্রতিবেশি লোকজন ছুটে এসে আহত অবস্থায় রুজিনাকে উদ্ধার করে।
সংবাদ পেয়ে রুজিনার পিতা ঘটনার স্থলে এসে আহত অবন্থা রুজিনা কে উদ্ধার করে এবং স্থানি ইউপি সদস্য মোহাম্মদ আলী উপস্থিতিতে আহত রুজিনাকে চিকিৎসার জন্য পিতার জিম্মা দিয়ে দেয়। আহত রোজিনা কে দ্রুত বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতা ভর্তি করানো হয়েছেন।এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলার প্রস্তুতি চলছে।

 

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.