Ultimate magazine theme for WordPress.

বগুড়ার মহাস্থানে অনৈতিক কাণ্ডে লিপ্ত অবস্থায় এলাকাবাসীর হাতে আটক, মহাস্থান প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের জড়িয়ে মিথ্যা অপ্রচার।

412

(বগুড়া) প্রতিনিধিঃ মহাস্থানে অনৈতিক কাণ্ডে লিপ্ত অবস্থায় এলাকাবাসী ২জুটিকে হাতেনাতে আটক করেছেন। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, দুপচাঁচিয়া এলাকার শাহআলম নামের এক যুবক প্রতিনিয়ত একটি (টিভিএস) লাল রংগের মোটরসাইকেল নিয়ে গড়-মহাস্থান পাথরপট্রি এলাকার তোফাজ্জলের দেহব্যবসায়ী স্ত্রী মেরিনার সাথে অসামাজিক কার্মকাণ্ড চালিয়ে যেত। এসময় স্থানীয় এলাকাবাসী ওই ছেলেকে একাধিকবার করোনা ভাইরাস মুহুর্তে মহাস্থানে আসতে নিষেধ করলে সে কোনো তোয়াক্কা না করে আবারও আসতে শুরু করে। এমতাবস্থায় গতকাল সকাল ১০টায় টানা বৃষ্টির সময় ওই যুবক পূর্বের ন্যায় মোটরসাইকেল নিয়ে এসে মেরিনার ঘরে প্রবেশ করে অনৈতিক কার্জে লিপ্ত হয়। এসময় এলাকাবাসী তাদের হাতেনাতে আটক করে। পরে তাদের জেরা করলে দেহব্যবসায়ী মেরিনা জানান, সে তার ধর্ম ভাই হয়। বিষয়টি নিশ্চিত হতে ওই ছেলের পরিবারে ফোন করলে তারা জানান, আমরা তো কিছুই জানি না মেরিনা নামের মহাস্থানে আমাদের কোন আত্মীয় নেই। পরে এলাকাবাসী তাদের শিবগঞ্জ থানা পুলিশের হাতে হস্তান্তর করতে চাইলে ওই ছেলের অভিভাবকেরা জানায়, আমরা মহাস্থানে আসতেছি। এবারের মত তাকে সুযোগ দিন, তাকে শাসন বাড়ন করে নিয়ে আসতেছি। এদিকে স্থানীয়রা জানায়, দেহব্যবসায়ী মেরিনার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ করে জানান, সে পরিকল্পনা করে গাঁজাসহ তার স্বামী তোফাজ্জলকে প্রায়ই পুলিশ দিয়ে ধরে দিয়ে ওই যুবককে নিয়ে ফুর্তি করে। বর্তমান মাদকের মামলায় তার স্বামী তোফাজ্জল জেল হাজতে রয়েছে। এরপর ওই যুবকের অভিভাবকেরা মহাস্থানে এসে ওই ছেলেকে শাসন বাড়ন করে তারা এলাবাসীদের ধন্যবাদ জানিয়ে চলে যায়। এদিকে মহাস্থানের বিপক্ষ প্রেসক্লাব গ্রুপ বিষয়টি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে এলাকার প্রকৃত সাংবাদিকদের মান ক্ষুন্ন করে বেশকিছু ফেইক আইডিতে বিভ্রান্তিকর পোস্ট দিয়ে সুনাম ক্ষুন্ন করছে। তারা নানা ভাবে বিষয়টি অপপ্রচার চালাচ্ছন। বলা হচ্ছে ওই যুবক মহাস্থান মজারে জিয়ারত করতে এসেছিল। তাকে প্রলোভনে জড়িত করা হয়েছে। করোনা ভাইরাস জনিত কারনে সরকারের নির্দেশে গত ১ মাসে মহাস্থান মাজারে কোন জিয়ারতকারীর প্রবেশ ঘটেনি। এমন কি ঐতিহাসিক মহাস্থান মসজিদে ৫জনের বেশি নামাজ পড়াও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। আরও বলা হয়েছে মহাস্থান প্রেসক্লাবের কিছু সাংবাদিকেরা ওই যুবককে ব্ল্যাকমেইন করে ৩৬ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। বিষয়টি সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তুতি গ্রহণ চলছে।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.