Ultimate magazine theme for WordPress.

বগুড়ার মহাস্থানে হাতির মৃত্যু

" হাতি বাচঁলেও লক্ষ টাকা মরলেও লক্ষ টাকা " এ কথার ভিত্তি নাই

432

আজিজুল হক বিপুল মহাস্থান ( বগুড়া) প্রতিনিধিঃ প্রবাদ আছে,”হাতি বাচঁলেও লক্ষ টাকা মরলেও লক্ষ টাকা “, এ কথার ভিত্তি নাই। বুধবার দুপুরে বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার ঐতিহাসিক মহাস্থান গড়ের দুধ পাথর এলাকায়, মঙ্গলবার দিবাগত রাতে একটি হাতি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পরে, পরের দিন বুধবার দুপুরে মারা যায়। এ খবর ছড়িয়ে পরলে মহাস্থান ভ্রমনে আসা লোক জন ও এলাকার লোক জন হাতিটি দেখার জন্য ভীর জমায়। সরেজমিনে গিয়ে জানাযায় মহাস্থান গড়ের সাবেক ইউপি সদস্য ফরহাদ হোসেনের পুত্র বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী মহিদুজ্জোহা মিলু গত ৬ মাস পূর্বে সিলেট থেকে ৮ লক্ষ টাকার বিনিময়ে আনুমানিক ৪৫ বছর বয়সের একটি হাতি ক্রয় করে, লাইসেন্স করে, মহাস্থান গড়ের নিজ বাড়ীতে নিয়ে আসে,হতি ভাড়া খাটানোর জন্য। প্রথম অবস্থায় গ্রামের এক জনকে হাতির মাউথ হিসাবে, দায়ীত্ব দেয়। হাতির মাউথ, হাতিকে খাওয়ায় ও হাতি ভাড়া খেটে যে টাকা পায়, তা থেকে নিজে কিছু নেয়, মালিককে কিছু দেয়। মিলুর ছোট ভাইকে জিঙ্গাসা করা হলো,প্রবাদ আছে,”হাতি বাচঁলেও লক্ষ টাকা মরলেও লক্ষ টাকা ” এটা কিভাবে হয় ? তিনি বল্লেন,এ কথার কোন ভিত্তি নাই। কারন হাতি মারা গেছে টাকা পাওয়াতো দুরের কথা। এখন কয়েক টন ওজনের এই মরা হাতি মাটিতে পুতে রাখতে আরও দুই চার হাজার টাকা খরচ হবে।

তারিখ : ০৪/০৭/২০১৮ইং

Leave A Reply

Your email address will not be published.