Ultimate magazine theme for WordPress.

বগুড়ার শিবগঞ্জে দাড়িদহ সরকারি হাটে অবৈধ কয়েকটি পাকাঘর নির্মাণ উচ্ছেদের অভিযোগ

287
বগুড়ার শিবগঞ্জ ঐতিহাসিক দাড়িদহ হাটের জায়গায় অবৈধভাবে বেশ কয়েকটি পাকা ঘর নির্মাণ করে গোপনীয় ভাবে পজিশন দেওয়ায় অভিযোগ, ঘর উচ্ছেদের দাবিতে ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক ইউএনও বরাবরে অভিযোগ দাখিল।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ঐতিহাসিক কয়েকটি হাটের মধ্যে ময়দানহাট্টা ইউনিয়নের দাড়িদহ হাটটি একটি গুরুত্বপন্ন। ইতিপূর্বে হাটটি ছিল ফাঁকা, বাঁশের খুঁটি দিয়ে চালের ও টিনের ছাউনী দ্বারা ঘর নির্মাণ করে দোকান স্থাপনা করে ব্যবসায়ীরা ব্যবসা পরিচালনা করে আসতো। আজ সে হাটটি এখন হাট নেই হয়েছে পাকা বাড়ী-ঘর । এলাকার কিছু অসাধু ব্যবসায়ী ও কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তিদ্বয়ের সহযোগীতায় স্থানীয় প্রশাসনদের বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে গোপনে মাটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়ে ইট দ্বারা পাকা ঘর নির্মান করে পজিশন বিক্রি করে দিয়েছে। বাজারের মধ্যে ঢুকছে না ট্রাক ও ভ্যান। ফলে হাটের সাথেই পাকা রাস্তা যানজটের সৃষ্টি হয়। গতকাল সরেজমিনে দেখা যায় হাটের পশ্চিম পার্শ্বে, দক্ষিণ পার্শ্বে ও উত্তর পার্শ্বে গড়ে উঠেছে ইটের পাকা ঘর, যাহা সহজে ভাঙ্গার উপায় নেই। হাটে অবৈধভাবে ঘর নির্মাণ করার বিষয়ে নাম প্রকাশ করতে অনিচ্ছুক কয়েক জন ব্যবসায়ী
বলেন, ভাই এমনিতেই পাকা ঘর নির্মান করিনী, এই ঘর নির্মাণের করার জন্য আমাদের থেকে সংশ্লিষ্ট ইজারদার অনেক টাকা নিয়েছেন। এলাকার কিছু অসাধু ব্যবসায়ী ও কিছু প্রভাব শালী ব্যক্তিরা ভূয়া কাগজপত্র সৃষ্টি করে সরকারি জায়গা দখল করে পাকা ঘর নির্মাণ করে দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকার পজিশন বিক্রয় করেছে। স্থানীয় ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা তহশীলদার প্রবীর চন্দ্র সাগর এর সাথে কথা বললে তিনি বলেন, অনেকে অবৈধ ভাবে ঘর করেছে, যাহা আমি ইতিমধ্যে উপজেলা ভূমি কর্মকর্তার কে বিষয়টি অবজ্ঞত করেছি। হাটের ইজারা সাজ্জাত হোসেন জানান, দাড়িদহ বাজারের জাফর নামে এক ব্যক্তিকে হাটের পরিচালনা দায়িত্ব দিয়েছি। সে যদি কোন অনিময় করে তা বন্ধ করা হবে। এদিকে গতকাল অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর বরাবরে অভিযোগ করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান এসএম রূপম বলেন, হাট পরিচালনাকারী আবু জাফর মন্ডল প্রভাব ঘাটিয়ে হাটের রাস্তার উপর ও গলির ভিতরে যেখানে সেখানে অবৈধ দোকান পাঠ গড়ে তুলেছেন। ফলে হাট চলাকালীন সময় সাধারণ হাটুরেদের চলাচলের চরম ভোগান্তি সৃষ্টি হচ্ছে। জনগণের স্বার্থে বিষয়টি আমি উপজেলা নির্বাহী অফিসার কে অবহিত করেছি। এব্যাপারে নির্বাহী অফিসার আলমগীর কবীর বলেছেন, এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। সরকারি জায়গায় ঘর নির্মাণ করলে তা অতি বিলম্বে উচ্ছেদ করা হবে।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com