Ultimate magazine theme for WordPress.

বগুড়ার শিবগঞ্জ অবৈধ বালুবাহী ট্রাকের চাপায় , প্রাণ গেল রাকিবের।

387

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বগুড়ার শিবগঞ্জ অবৈধ বালুর ট্রাক চাপায় পরিবারের প্রধান উপার্জনক্ষম রাকিব (১৪) নামের এক শিশু শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত রাকিব হাসান সে শিবগঞ্জ উপজেলার আলাদীপুর গ্রামের খলিলুর রহমানের পুত্র। তার পিতা একজন মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তি।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মৃত রাকিবদের বাড়ি বলতে শুধু মাত্র একটি টিনের ছাউনি। অভাব অনাটনের সংসারে পিতা থেকেও নেই। রাকিবের মা, অন্যের বাড়িতে শ্রমের কাজ করেন। এক ভাই, এক বোনের মধ্যে রাকিব বড়। এলাকাবাসী জানায়, অসহায় দরিদ্র পরিবারের প্রধান কর্মের হাতিয়ার ছিল রাকিব। তাদের সংসারে অভাব অনাটনের কারণে স্কুলে ভর্তি হয়েও লেখাপড়া করার সুযোগ হয়নি তার। সংসারে সচ্ছলতা ফিরে আনতে কিশোর বয়সেই বেচেঁ নিয়েছে ট্রাকে মাটি কাটার কাজ। এই ট্রাকে মাটি কাটায় হলো তার জীবনের কাল। উপজেলার আলাদীপুর এই এলাকায় অবৈধ মাটি কাটার মহোৎসব চলছে। নজিরবিহীন পরিবেশ বিধ্বংশী অবৈধ ভাবে জমি কাটা প্রকাশ্যে চললেও প্রশাসন রহস্যজনক ভাবে নিরবভূমিকা পালন করছে বলে সচেতন মহলের অভিযোগ। ফলে আমান জমি কেটে ট্রাকভর্তি করে মাটি বিক্রি করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে জমি খেকোরা। যে কারনে অকালে মৃত্যু হলো রাকিবের।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার হরিপুর বন্দরে দক্ষিণপাশে জায়ের আলীর পুত্র এলাকার প্রভাবশালী ভূমিদস্যু সবুজ কিছু কতিপয় দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের মোটা অংকের টাকা দিয়ে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সহযোগিতায় সিন্ডিকেট করে সংরক্ষিত জমি অবৈধ ভাবে নিধনযজ্ঞ চালিয়ে শত শত ট্রাক যোগে বিভিন্ন জায়গায় সরবরাহ করছে।
বুধবার (২৯এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৫টায় ভুমিদস্যু সবুজের মাটির পয়েন্টে ট্রাক যোগে মাটি আনতে যায় রাকিব সহ আর বেশ কয়েকজন লেবার শ্রমিক। এদিকে মাটিবাহী গাড়ীর প্রধান চালক আজাদুল রহমান সে নিজে গাড়ী না চালিয়ে শাহ আলম নামের তার এক লেবার শ্রমিককে মাটি লোড করার জন্য পাঠিয়ে দেয়। চালকের কথা মত শাহআলম সবুজের পয়েন্টে গাড়ি বেপরোয়া ভাবে নিয়ে মাটিভর্তি করে। এসময় গাড়ি পিছন দিকে গড়ালে রাকিব গাড়ীর পিছনে চাকায় বাশঁ দিতে গেলে অসাবধানতা বসত ট্রাকটি পিছনে গড়িয়ে রাকিবকে চাপা দেয়। এসময় রাকিবের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে তাৎক্ষণিক বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) ভর্তি করলে তার মৃত্যু হয়। চালকের গাফিলতি ও উদাসীনতার কারনে শিশু রাকিবের মৃত্যু হয়েছে বলে এলাকাবাসী অভিযোগ করেন। এলাকার সচেতন মহল জানান, যতদিন অবৈধ বালু ও ভূমিদস্যুরা তাদের কার্মকাণ্ড বন্ধ না করবে ততদিন এধরনের দূর্ঘটনা ঘটবেই। গ্রামীণ রাস্তায় বীরদর্পে দাপিয়ে চলা লক্কর ঝক্কর ফিটনেস বিহীন এসব মাটিবাহী গাড়ীতে রাস্তাঘাট নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। আমরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাস্তায় চলি। জমির মালিকদের অভিযোগেরও শেষ নেই। তারা তাদের ভিটামাটি রক্ষার জন্য প্রশাসনের উচ্চ মহলের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।
বালুবাহী ট্রাক চাপায় শিশু রাকিবের মৃত্যুর বিষয়ে শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমানের সাথে কথা বললে তিনি জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পুলিশ পরিদর্শন করেছে। তিনি আরও জানান, ব্যাপারে কেউ অভিযোগ করেনি। তারপরেও জড়িত ব্যক্তিদের আটক করতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। রাকিবের মৃত্যুতে এলাকাজুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.