Ultimate magazine theme for WordPress.

বগুড়ায় অন্যরকম এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন শাহজাহান সম্রাট

172

 

স্টাফ রিপোর্টার মোঃ মাহিদুল হাসান (মাহি)ঃবগুড়া শহরের পুরান বগুড়ায় আজ ১৩ই মে ২০২০ইং রোজঃ বুধবার। পুরান বগুড়ার বাঘ মার্কা মকবুল গুল ও সম্রাট জর্দা ফ্যাক্টরির স্বতাধীকারী আলহাজ্ব মোঃ শাজাহান আলী সম্রাট, এক অন্যরকম দৃষ্টান্ত স্হাপন করলেন কোভিড-১৯ প্রতিরোধে অসহায় কর্ম ও বস্ত্রহীন ২ হাজারেরও বেশি মানুষের মাঝে খাদ্য ও বস্ত্র বিতরন করেন। এ খাদ্য ও বস্ত্র সামগ্রীতে রয়েছে, ভাতের চাল, পোলার চাল,ডাল,মুড়ি, লাচ্ছা, চিনি, তৈল, নগদ টাকা, মহিলাদের জন্য শাড়ী, পুরুষদের জন্য লুঙ্গি ও মেয়েদের জন্য থ্রী-পিছ। গত ২৫ মার্চ ২০ইং থেকে শুরু করা এ কর্মসূচীতে প্রায় পাঁচ হাজার দুস্থ ও কর্মহীন পরিবারের মানুষের মাঝে এ খাদ্য ও বস্ত্র সামগ্রী বিতরণ শুরু করেছেন এবং এখনো অব্যাহত রয়েছে। করোনা ভাইরাসে দেশ যখন সংকটময় মুহুর্তে, মানুষ হয়ে পড়েছে ক্ষুধার্থ ও কর্মহীন ঠিক তখনি দানবীরের বেশে তিনি দুস্থ ও কর্মহীন মানুষের মাঝে এগিয়ে এসেছেন। এছাড়াও পবিত্র রমজান মাস থেকে তিনি ৩শত পরিবারের এক বেলার খাবার, এলাকার যুব সমাজের মাধ্যমে প্রতিটি বাড়ী বাড়ী পৌঁছে দিচ্ছেন। এবং ওয়াপদার গেট সংলগ্ন স্টেশন রোডে নিজে দাড়িয়ে থেকে শত শত রিক্সা,ভ্যান ও ইজিবাইক চালকের হাতে রান্না করা খাবার পৌছে দিচ্ছেন। এলাকার যুব সমাজ, শাজাহান সম্রাটের এই মহৎ উদ্দ্যেগে সেচ্ছায় এগিয়ে এসে শ্রম দিচ্ছেন। বিস্বস্থ সূত্রে জানা গেছে, তিনি নিজেকে আড়ালে রেখে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন ও ব্যাক্তিদের মাধ্যমে প্রচুর পরিমানে খাদ্য দ্রব্য ও নগদ অর্থ দিয়ে সহযোগীতা করছেন, এবং এ পর্যন্ত তিনি ৩০ থেকে ৩৫ লক্ষ টাকার খাদ্য ও বস্ত্র বিতরন করেছেন। এলাকার জনসাধারনের সাথে কথা বলে জানা যায়, শাজাহান সম্রাট সারা বছরই দুস্থ ও গরিব মানুষের মাঝে কোন না কোন সাহায্য সহযোগিতা করেই থাকেন এবং এই রকম সহযোগীতা তিনি প্রায় ২ যুগ ধরে করে আসছেন। তার সাথে কথা বলে আরো জানা যায়, তার দেয়া সাহায্য ও সহযোগিতা তিনি মিডিয়ায় প্রকাশ করতে চান না, তিনি আরো বলেন আমি যতদিন জীবিত আছি ততদিন দুস্থ মানুষের পাশে থাকতে চাই ও সমাজের জন্য ভালো কিছু করতে চাই। তিনি মিডিয়াকে বলেন, আমি গনমাধ্যমে এসব প্রচার করতে চাই না, আমার সবচেয়ে বড় দুই মিডিয়া আল্লাহ তায়ালা রেখেছেন আমার দুই কাঁধে। গত ২ সপ্তাহ আগে শাজাহান সম্রাট ফেসবুকে এক বার্তায় পুরান বগুড়াকে ক্ষুধা মুক্ত ঘোষনা করেন, তিনি আরো বলেন পুরান বগুড়ার একটি পরিবারও না খেয়ে থাকবে না এবং কেউ যদি না খেয়ে থাকেন তাহলে তার বাসায় আমি নিজ দায়িত্বে খাবার পৌছে দিবো। তিনি গনমাধ্যমকে আরো জানান, যতক্ষণ দেশে এ দুরাবস্থা থাকবে ততদিন পর্যন্ত আমি অসহায় ও দুস্থ মানুষের পাশে আছি ও থাকবো, এতে করে যদি আমার বাড়ী ঘর, সম্পদও বিক্রি করতে হয় তবুও আমি বিন্দু পরিমানও পিছু পা হবো না। শাজাহান সম্রাট তার নামের যথাযথ সু-বিচার করছেন, সমাজের বিত্তশালীরা তার কাছ থেকে শিক্ষা গ্রহন করে অসহায় ও দুস্থ মানুষের সেবায় ব্রুত হয়ে পাশে দাড়ানো উচিত। মানবতার এক বড় উদাহরন ও অসহায় মানুষের সম্রাট’ই এই শাজাহান সম্রাট।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com