Ultimate magazine theme for WordPress.

বগুড়ায় আকস্মিক নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি হওয়ায় আমন ধানসহ অন্যান্য ফসলের ব্যপক ক্ষতি।

280
উৎপল কুমার মোহন্ত শিবগঞ্জ প্রতিনিধি (বগুড়া): বগুড়ার শিবগঞ্জ সদর ইউনিয়ন সহ বেশ কয়েকটি ইউনিয়নে করোতোয়া,গাংনই,নাগর নদীর পানি বৃদ্ধি হওয়ায় আমন ধান,পটল,মরিচ,কচু, কপি, করলা সহ বিভিন্ন প্রকার সবজির জমি পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ায় ফসলের ব্যপক ক্ষতি সাধন হয়েছে।

বগুড়ার শস্য ভান্ডার হিসাবে খ্যাত শিবগঞ্জ উপজেলায় এবার আমন ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা ছিলো ১৯ হাজার হেক্টর জমিতে।
ভোরবেলার পাখির মিষ্টি ডাক থেকে শুরু করে সন্ধ্যা পর্যন্ত অকালন্ত পরিশ্রম করে হাল দিয়ে জমি কাঁদা করে পাতানো বীজ তলা থেকে চারা তুলে,জমিতে আমন ধান সহ অন্যান্য ফসলের চাষ করেন কৃষকেরা, স্থানীয় এক কৃষক বলেন,এবার বোরো ধানের ফলন খুব ভালো হয়েছে, সেই আশায় জমিতে আমনের চারা লাগিয়ে ছিলাম কিন্তু কপাল খারাপ।এই করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যেও ব্যপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে আমনের চারা রোপন করতে দেখা যায় উপজেলার কৃষকদের এবং কপির বীজতলা তৈরি করে চারা উৎপাদন সহ কঠোর পরিশ্রম করে কপি চাষের ব্যপক সম্ভাবনা আশা করে ছিলাম। উপজেলার বেশ কয়েকটি ইউনিয়ন ঘুরে এই চিত্র লক্ষ্য করা যায়।কিন্তু বর্তমানে নদনদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় আশার মুখে ছাই পরেছে উপজেলার বেশ কয়েকটি ইউনিয়নের কৃষকের মাথায় হাত। শিবগঞ্জ সদর ইউনিয়নের কৃষক আব্দুস শামসুল মন্ডলের সাথে কথা বললে, তিনি বলেন আমার জমি করতোয়া নদী উপকূলবর্তী হওয়ায় আমার পত্তনি সহ ০৪ বিঘা জমির কপি পুরোটাই পানির নিচে তলিয়ে গেছে, আরেক কৃষক আলতাব হোসেন বলেন,আবহাওয়া ভালো থাকায় ৩বিঘা জমিতে আমি মৌসুমি ফসল পটল চাষ করে ছিলাম,তা পুরোটাই এখন পানির নিচে,সফিকুল ইসলামের পত্তনি সহ ০৬ বিঘা জমির আমন ধান নষ্ট হয়ে যাওয়ায় তাকে জিজ্ঞেস করতেই তিনি হতাশ মুখে বলেন “ওরে নিদারুণ বিধি তোর পরাণে কি দয়ামায়া নাই।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com