Ultimate magazine theme for WordPress.

বগুড়ায় এক তালাক প্রাপ্তাকে গনধর্ষনের পর খুন উলঙ্গ লাশ উদ্ধার ।

352

রাজিবুল ইসলাম রক্তিম, বগুড়া থেকে ।।বগুড়ার শাজাহানপুরে সালমা বেগম(২৭)নামের এক তালাক প্রাপ্তা এক নারী খুন হয়েছেন। মঙ্গলবার দুপুরে এলাকার ধান ক্ষেত থেকে তার উলঙ্গ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। স্থানীয়দের ধারনা সঙ্গবদ্ধ ধর্ষনের পর তাকে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শাজাহানপুর উপজেলার আশেকপুর পশ্চিমপাড়া গ্রামে। 

নিহত সালমা শাজাহানপুর উপজেলার আশেকপুর পশ্চিমপাড়া গ্রামের শাহেদ আলীর মেয়ে।
জানা গেছে, গত কয়েক বছর আগে গাবতলী উপজেলার তরনীহাট এলাকার জনৈক সোহেল রানা নামের এক যুবকের সাথে সালমা বেগমের বিয়ে হয়েছিল। তাদের দাম্পত্ব জীবনে দুটি সন্তান রয়েছে।
সালমা বেগমের মা ছাহেরা বেগম দৈনিক দৃষ্টি প্রতিদিনকে জানান, মেয়ে সালমাকে গাবতলী উপজেলার তন্বী গ্রামের সোহেল নামে এক ব্যক্তির সাথে বিয়ে দেন। তাদের সংসারে জান্নাতি (৯) ও আল আমিন (৬) নামে দুটি সন্তান রয়েছে। সংসারে মনোমালিন্য হওয়ায় ৬ মাস আগে তাদের ছাড়াছাড়ি হয়। বিয়ের পর থেকেই সালমা বাবার বাড়িতেই থাকতো। সালমা স্থানীয় একটি ব্যাগ তৈরীর কারখানায় শ্রমিকের কাজ করতো। মাঝে মধ্যে জামাই সোহেল রাস্তায় সালমাকে বিরক্ত করতো। এমনি ধারালো অস্ত্র দেখিয়ে হত্যার হুমকিও দিত।
এদিকে সোমবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে প্রকৃতির ডাকে সারা দিয়ে এবং সালমা পাশের ঘরে সন্তানদের নিয়ে শুয়ে পড়ে। শেষ রাতে সেহরীর জন্য উঠে দেখেন ঘরে সালমা নেই। তখন থেকেই সালমাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। সকালবেলা লোকমুখে সালমাকে নিজ বাড়ির অদূরে ধানক্ষেতে মৃত এবং উলঙ্গ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে তার বাবাকে খবর দেন গ্রামের লোকজন। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।
শাজাহানপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি সার্বিক) নাজিম উদ্দিন এর দাবী নিহতের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন ছিলনা । অন্যদিকে এলাকাবাসীর ধারনা গনধর্ষন শেষে তাকে গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যার পর তার লাশ অকুস্থলে ও ফেলে রেখে যাওয়া হয়েছে। ঘটনার পর খবর পেয়ে বগুড়ার পুলিশ সুপার মুহাঃ আলী আশরাফ ভুঞাঁ বিপিএম (বার )সহ উর্ধতনরা ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেন।
01711-717015

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.