Ultimate magazine theme for WordPress.

বগুড়ায় ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে চারজন পুলিশ সদস্য ক্লোজড

519

 

বগুড়ায় ঘুষ গ্রহণ করার অভিযোগে সারিয়াকান্দি থানার দুই কর্মকর্তাসহ চার পুলিশ সদস্যকে পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার (ক্লোজড) করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে তাদের পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে বলে গাবতলী সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার সাবিনা ইয়াসমিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ।

চার পুলিশ সদস্য হলেন সারিয়াকান্দি থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর আলম, সহকারি উপ পরিদর্শক (এএসআই) আমিরুল ইসলাম, কনস্টেবল খোকন চন্দ্র ও কনস্টেবল জাহিদুল ইসলাম।

পুলিশ ও অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত সোমবার রাতে সারিয়াকান্দি ও সোনাতলা উপজেলার সীমানা এলাকায় জোড়গাছা ইউনিয়নের গনসার পাড়া গ্রামের টহলে ছিলেন ওই চার পুলিশ সদস্য । তারা স্থানীয় একটি হত্যা মামলার আসামীকে খোঁজ করছিলেন। এর মধ্যে ওই গ্রামের মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে চৈতা মিয়াকে (২৫) সন্দেহ হয় তাদের। পুলিশ সদস্যরা তাকে নিয়ে আসতে চাইলে তিনি সরকারের একজন সচিবের আত্মীয় বলে নিজেকে পরিচয় দেন। পরে পুলিশ চৈতাকে আটক করে। এ সময় তার দেহ তল্লাশি করে ছোট একটি চাকু পাওয়া যায়। পরে পুলিশ ভয়ভীতি দেখিয়ে চৈতাকে ছেড়ে দেওয়ার কথা বলে তার মায়ের কাছ থেকে ৬ হাজার টাকা ঘুষ নেন। ঘুষ গ্রহণ করার পরে চৈতাকে ছেড়ে দেয় পুলিশ ।

এ ঘটনার পর বিষয়টি সারিয়াকান্দি থানার ওসি সহ সার্কেল কার্যালয়কে জানানো হয়। পরে ওই রাতেই সারিয়াকান্দি থানার ওসি আল আমিন নিজেই ঘটনাস্থলে যান। ঘটনাস্থলে যাওয়ার পর প্রাথমিকভাবে ঘুষ গ্রহণ করার বিষয়টি প্রমাণিত হয়।

বগুড়ার গাবতলী সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার সাবিনা ইয়াসমিন জানান, সরেজমিনে তদন্ত করে চৈতা মিয়ার মায়ের কাছ থেকে ঘুষ গ্রহণ করার বিষয়টি প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়েছে। এ কারণে অভিযুক্ত চার পুলিশ সদস্যকে সারিয়াকান্দি থানা থেকে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে । বিষয়টি নিয়ে আরও তদন্ত হবে,তদন্ত সাপেক্ষে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.