Ultimate magazine theme for WordPress.

বগুড়ায় তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রীকে বারবার শীলতা হানির অভিযোগ! টাকা দিয়ে ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা

169

 

রাকিবুল হাসান, ক্রাইম রিপোর্টার, বগুড়া শিবগঞ্জে দেউলী ইউনিয়নের লক্ষীকোলা চকপাড়া গ্রামের খোরশেদ এর মেয়ে সুমি দেউলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীর পড়ুয়া ছাত্রী(১২) উপর কয়েকদফা শীলতা হানি চেষ্টা করেছে মৃত মিছির আলীর ছেলে লম্পট শাজাহান(৫০)।
জানা যায়, লক্ষীকোলা চকপাড়া গ্রামের এক স্বামী পরিত্যাক্তার কন্যা ওই স্কুল ছাত্রী সুমি। সুমি দরিদ্র নানা বাকীর বাড়িতে থেকে লেখাপড়া করে। একই গ্রামে লম্পট শাহাজাহান এর পাশাপাশি বাড়ী। লম্পট শাহজাহানের কু-দৃষ্টি পড়ে ওই ছোট্ট শিশুর উপর। শাজাহান বিভিন্ন সময় ওই শিশুকে ডেকে নিয়ে যৌন হয়রানী করে। পরে শিশুটি তার নানাকে জানালে এর প্রেক্ষিতে ওই শিশুর নানা বাকি এলাকার ধনাঢ্য ব্যবসায়ী গ্রাম্য মাতাব্বর আশরাফুল, ফজলু সহ কয়েকজনের কাছে এর বিচার চাইলে লম্পট শাজাহান প্রথমে ৫০/টাকা হাতে নিয়ে নানার পরিবারের কাছে উপস্থিত লোকজনদের সামনে কান ধরে তওবা পড়ে ৫০/টাকা দিতে চায়। ভুক্তভোগী পরিবার মানসম্মানের ভয়ে ও গরিব পরিবার হওয়ায় হাস্যকর টাকা না নিয়েই সেবারের মতো মাফ করে দেয়। পরবর্তীতে আবারও একই ঘটনা ঘটাতে থাকে ঐ লম্পট। ভুক্তভোগীরা আবারো উল্লেখিত ধনাঢ্য ব্যবসায়ীদের কাছে অভিযোগ করলে লম্পট শাজাহান ও তার স্ত্রী, মেয়ে পরিবার সহ হাস্যকর ১০০/টাকা নিয়ে এসে কান ধরে উঠাবসা করে আবারও মাফ চায়। বিষয়টি গত ২০ জুন সাংবাদিকদের অভিযোগ করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে বেশ ক’জন সাংবাদিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এলাকাবাসীর কাছে থেকে অভিযোগ পাওয়া যায়। লম্পট শাজাহান একজন হিন-বিকৃত মানসিকতার মানুষ এর আগেও কয়েক বার পাড়া-প্রতিবেশী বিভিন্ন পরিবারের সাথে যৌন হয়রানি করে গ্রাম্য শালিসে ও মোকামতলা পুলিশ ফাঁড়িতে বিচার শালিশ করে কয়েক দফা জরিমানা দিয়ে প্রত্যেক ঘটনায় পার পেয়ে যায়। বর্তমানে যৌন হয়রানীর শিকার ওই শিশুর মামা সুলতান এলাকার কিছু লোককে জানালেও সালিস করার কথা জানান। কিন্তু সালিস হয়নি। তাই ভুক্তভোগী পরিবার ও গ্রামবাসী লম্পট শাহজাহানের বিচার চায়। এদিকে, লম্পট প্রভাবশালী হওয়ায় টাকা দিয়ে ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে। পাচ হাজার টাকার বিনিময়ে ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার অভিযোগ ও উঠেছে সোনা মাষ্টারের বিরুদ্ধে।
এবিষয়ে গত ২০ জুন ভুক্তভোগী পরিবার মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে ঘটনার ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ করতে গেলে এস এই মোবারক বলেন এখানে অভিযোগ হবে না থানায় গিয়ে করেন বলে জানান।

Leave A Reply

Your email address will not be published.