Ultimate magazine theme for WordPress.

বগুড়ায় শান্তিপুর্ণভাবে ভোট দিচ্ছে মেশিনে।

355

শুনলাম ভোট দেওয়ার মেশিন বসাইছে । সেই মেশিনই নাকি ভোট দিয়ে দিচ্ছে । তাই আমরা আর কষ্ট করে ভোট দিতে যাইনি ।
বগুাড়া-৬ আসনের উপনির্বাচনে এমনটাই মন্তব্য করেছেন ভোট দিতে না যাওয়া অনেক ভোটার।
বগুড়ার অনেক ভোটরই এমন কথা বলছেন। তাদের ধারনা ইভিএম মানেই তো ভোট দিয়ে দেওয়ার মেশিন।
মেশিন থাকতে আবার আমি গিয়ে করবো কী ?
বগুড়া-৬ আসনে উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে। সোমবার সকাল ৯টা থেকে ভোট শুরু হয়ে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলবে। প্রতিটি কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে ভোটগ্রহণ চলছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ভোটকেন্দ্রগুলো ভোটরশুন্য দেখা গেছে।
এদিকে সকাল নয়টায় বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায় ভোটরশুন্য ভোটকেন্দ্রে শুধুই প্রশাসনের
কড়া পাহারা বসানো হয়েছে। ভোটার না থাকায় বসে
নির্বিকার বসে আছেন প্রিজাইডিং অফিসার, পোলিং অফিসারসহ সকল কর্মকর্তারা।এবারে বগুড়ার এই উপনির্বাচনে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে নেয়া হয়েছে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা । রোববার রাত ১২টা থেকে সোমবার রাত ১২টা পর্যন্ত সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। ভোট উপলক্ষে নির্বাচনী এলাকায় সোমবার সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।
উপনির্বাচনে ৬ জন প্রার্থী থাকলেও মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে নৌকা ও ধানের শীষের মধ্যে।
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বগুড়া-৬ আসন থেকে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শপথ না নেয়ায় আসনটি শূন্য হয়।
ধানের শীষ মার্কায় শেরপুর ধুনটের সাবেক এমপি গিালাম মুহম্মদ সিরাজ এবং নৌকা প্রতীকে বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক টি জামান নিকেতার মধ্যেই এই নির্বাচানে মুল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে।
ভোটরদের মধ্যে ভোটকেন্দ্রে আসার আগ্রহ না থাকার নানা কারন রয়েছে। এবারই বগুড়ায় প্রথম ইভিএম মেশিনে ভোটগ্রহন করা হচ্ছে। এটা নিয়ে অনৈক ভোটারের মধ্যে ভুল ধারনাও সৃষ্টি হয়েছে। অেনেকেই ভেবেছেন যেহেতু ,মেশিনই ভোট দিয়ে দেবে তাই কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেওয়ার দরকার হবে না। এটা ভেবে অনৈকেই ভোটকেন্দ্রে যাননি।বগুড়ায় পুর্ব ঘোষিত শিডিউল অনুযায়ি বগুড়া সদর সংসদীয় আসনের উপনির্বাচনে ভোট গ্রহন শুরু হয়েছে । সকাল ৯টা থেকে ১৪১টি ভোটকেন্দ্রে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন ইভিএমে শুরু হওয়া ভোট চলছে শান্তিপুর্ণভাবে । সরেজমীনে শহর ও ইউনিয়ন পর্যায়ের ৩০টি কেন্দ্র ঘুরে কোথাও কোনো সংঘাত সহিংসতার আলামত দেখা যায়নি ।
সরেজমীনে দেখা সবকটি কেন্দ্রের বাইরে দেখা গেছে , নৌকা , ধানের শীষ ও লাঙ্গল প্রতিকেরর সমর্থকরা পাশাপাশি টেবিল চেয়ারে বসে ভোটারদের নম্বর স্লিপ দিচ্ছেন , নিজেদের মধ্যে হাসি ঠাট্টাও করছেন ।তবে
সকাল ৯টায় ভোট শুরুর পর থেকেই থেকেই কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি কম ছিল। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটারদের উপস্থিতি বাড়বে বলে আশা প্রকাশ করলেও তা হয়নি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.