Ultimate magazine theme for WordPress.

বগুড়া গাবতলী উপজেলার দুর্গাহাটা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মতিনের নামে মিথ্যা সংবাদ প্রচারের বিরুদ্ধে ফুসে উঠেছে এলাকাবাসী।

991

গত ১৮ নভেম্বর chomoknews.com এ “বগুড়ায় সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মীকে হত্যার চেষ্টা করল চেয়ারম্যান মতিন” শিরোনামে একটি নিউজ প্রচার হয়। নিউজটি সোসাল মিডিয়ার মাধ্যমে স্থানিয় ইউনিয়নে ছড়িয়ে পড়লে সাধারণ মানুষের মধ্যে বিক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখা যায়।

সরে জমিনে গিয়ে জানা গেছে, ভান্ডরা গ্রামের ৩/৪ শত মানুষের চলা চলের রাস্তা নির্ধারণ নিয়ে প্রায় এক বছর যাবৎ অনন্যা হীরার সাথে গ্রাম বাসীর পক্ষে শুভন সরকারের বিরোধ চলছে।

স্থানিয় ওয়ার্ড সদস্য মাজেদুল ইসলাম বলেন, এলাকার শতশত মানুষকে নিয়ে জায়গাটি ৩/৪ বার সিমানা নির্ধারণ করা হলেও অনন্যা হীরা তা না মেনে বিভিন্ন অভিযোগ করে আসছে।

চলতি মাসের শুরুর দিকে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন উভয় পক্ষকে ঢেকে সার্ভেয়ার দিয়ে রাস্তা নির্ধারণ করে বাসের বেড়া দিয়ে সিমানা নির্ধরণ করে দেন।

সিমানা নির্ধারণের বেড়াটি অনন্যা হীরা তার লোকজন সহ ভেঙ্গে ফেলে।

অনন্যা হীরা বলেন, তার জমি দখল করছে এতে সে বাঁধা দিলে চেয়ারম্যন আব্দুল মতিন তাকে অশ্লীল ভাষায় গালি ও প্রাণনাশের হুমকি দেয়। এবং তার অনুপস্থিতিতে তার সিমানায় বেড়া দেওয়াই তিনি বেড়াটি খুলে ফেলেছে।

চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন বলেন, ৩/৪ শত লোকের উপস্থিতিতে অনন্যা হীরাকে বলা হয়েছে তোমার ১ইঞ্চি জায়গাও আমরা নিবোনা। শত শত লোকের চলা চলের রাস্তাটি আমরা শুভন সরকারের কাছ থেকে নিবো। শুধু সিমানা নির্ধারণ করতে হবে। তাকে হুমকি দেওয়া তো দুরের কথা তার সাথ কোন কটুক্তিও করা হয়নী। চেয়ারম্যান আরো বলেন, আমার নামে অনন্যা হীরার মিথ্যা সংবাদ প্রচারের বিরুদ্ধে আমি আইনগত ব্যবস্থা নিবো।

এদিকে জায়গাটি আবারও উপজেলা ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার মতিউল ইসলাম মাপ-যোগ দিয়ে পূর্বের মাপ ঠিক আছে বলে ঘোষণা দেন। এ রায় উভই পক্ষ মেনে নিয়াছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন চেয়ারম্যান, মেম্বার, মহিলা মেম্বার, গণ্যমান্য ব্যক্তি সহ এলাকার শতাধিক জন সাধারণ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.