Ultimate magazine theme for WordPress.

শিবগঞ্জ বানিহারা গ্রামের তরিকুল ফকির এর সোনা ও টাকা নিয়ে পালিয়ে গেলো তার স্ত্রী মরিয়ম বিবি

307

আতাউর রহমান বগুড়া (জেলা) বিশেষ প্রতিনিধিঃ

বগুড়া শিবগঞ্জ ইউপি বানিহারা গ্রামে আব্দুল মহসিন ফকির এর দ্বিতীয় ছেলে মোহাম্মদ তারিকুল ফকির দীর্ঘদিন যাবত আটমূল বাজারের পুয়া গাড়ি গ্রামের প্রবাসী মোঃ আতিকুর রহমানের স্ত্রী মোছাঃ মরিয়ম বিবি সাথে দুই বছর যাবত পরকীয়া প্রেমে লিপ্ত হন মোঃ তারিকুল ফকির, এভাবে চলতে থাকে বেশ কিছু দিন যাবত, একদিন মরিয়ম বিবি তারিকুল ফকিরকে রাতের আধারে তার নিজ বাড়িতে যাওয়ার জন্য বলে এদিকে তারিকুল ফকির প্রেমের টানে দেখা করতে যায় ঠিক ১১.৫০ মিনিটে ঢুকে পড়ে প্রবাসী আতিকুর রহমান এর স্ত্রী মরিয়ম বিবির ঘরে, এদিকে মরিয়ম বিবির শাশুড়ি কানা ঘোষা শুনতে পায়, আর তাদের ঘরে গিয়ে দেখে তারা দুজন গভীর ভাবে মিলামিশা করছে আর এ ব্যাপারটা জেনেও না জানার ভান করে থাকে তার শাশুড়ি, এবং তার পুত্র কে পর দিন সকালে সব কিছু ফোনের মাধ্যমে জানাই, আর তার স্বামী জানতে পেরে মরিয়ম বিবিকে মোবাইল ফোনে গালিগালাজ করতে থাকে, এদিকে দুদিন পরে মরিয়ম বিবি তরিকুল ইসলামকে মোবাইল ফোনে ডেকে পাঠায় এবং রাতের আঁধারে দুজন পালিয়ে যায়। আর ঘর সংসার করতে থাকে দীর্ঘ ৮ মাস যাবত ঘর সংসার করতে থাকে ভালো ভাবে, এ দিকে মরিয়ম এর বাবা মোঃ মতিন ও তার মা জয়পুর কালাই সিকটা পাড়া গ্রামে বসবাস করত,মতিন ফোনের মাধ্যমে কথা বার্তা বলতো তার মেয়ে মরিয়ম ও তরিকুলের সাথে আর একদিন হঠাৎ করে তার বাবা-মা নতুন জামাই তাকিকুল এর বাড়িতে বেড়াতে আসে আর তার মেয়েকে কালাই সিকটা পাড়ায় বেড়ানো নাম করে নিয়ে য়ায় এদিকে তরিকুল ৪ রাতে তার স্ত্রী মরিয়ম কে ফোন দিলে ফোনটি বন্ধ দেখায় এদিকে তরিকুলের মনে সন্দেহ জাগতে থাকে আর টেবিলের ড্রয়ার খুলে দেখতে পায় তার রক্ত ঘামানো জমানো 50000 টাকা ও দুই ভরি স্বর্ণ কার আর নেই এদিকে তরিকুল ফরির দিশেহারা হয়ে পড়ে, আর তার স্ত্রী মরিয়মকে ফোন দিতে থাকে ফোনটি বন্ধ দেখায় , আজও খোঁজ মেলেনি মরিয়ম ও তার বাবা মতিন এর

Leave A Reply

Your email address will not be published.