Ultimate magazine theme for WordPress.

সাদুল্লাপুরের আলমগীর এখন রাজধানীর জাদুশিল্পী

21

নানা শ্বাসরুদ্ধকর খেলা দেখিয়ে গোটা দেশ মাতাচ্ছেন অসংখ্য বিখ্যাত সব জাদুকর। তাদের নিয়ে মানুষের কৌতূহলের কমতি নেই। কিন্তুু প্রত্যন্ত গ্রামের সেই আলোকিত জাদুকর আলমগীর ১৯৯২ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি গাইবান্ধা জেলার সাদুল্লাপুর উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নে ইসবপুর গ্রামে তার জন্ম। আর শিক্ষাজীবন কাটে স্থানীয় ইসবপুর স্কুলে। বাবার নাম আবু বক্কর সিদ্দিক মাতা মরিয়ম বেগম। তিন ভাই এর মধ্যে ২য় আলমগীর। ছেলেবেলা থেকেই জাদুবিদ্যায় আগ্রহ তার। আবার জাদুবিদ্যায় বংশগত ঐতিহ্যও না থাকলেও আগ্রহটা বেশি কাজ করতো স্বপ্নে। ইসবপুর মাদ্রাসা থেকে এসএসসি এবং স্থানীয় পীররগঞ্জের চতরা কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করে ঢাকায় প্যারামেডিকেল কোর্স করে কর্মব্যস্ত। খুব ছোটবেলা থেকে জাদু শিক্ষার ইচ্ছা থাকলেও প্রশিক্ষকের অভাবে সেই ভালো লাগা ভালোবাসায় পরিণত হয় বর্তমানে জাদু পেশা। মূলত ভালোলাগা থেকেই জাদু চর্চা করা। কিন্তু একটা সময় তিনি জাদুবিদ্যাকে অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে নেন। তার ইচ্ছা ছিল যেভাবেই হোক বাংলাদেশকে বিশ্বের বুকে সম্মানের আসনে বসাতেই হবে। সেই থেকেই জোরেশোরে জাদুর চর্চা শুরু। তখনকার খ্যাতিমান ও স্বনামধন্য জাদুকর যাদের মধ্যে জুয়েল আইচ “‘ রবিন খান” এস এইচ সাইমন “ওমর শরিফ “সহ অনেকের কাছে জাদুবিদ্যা শিখলেও নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চান দেশের সেরা জাদুশিল্পী হিসাবে।জাদুশিক্ষা শেষ না হলেও তার নিজস্ব ম্যাজিক গিফট কর্নার নামে একটি যাদুবিদ্যা প্রশিক্ষণ কেন্দ্র রয়েছে ঢাকায়। সেখানে জাদু প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। পাশাপাশি বাংলাদেশের বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে ম্যাজিক শো ও দেশের বিভিন্ন জায়গায় সুনামের সহিত জাদু প্রদর্শন করছেন। বহিঃবিশ্বে দেশের মাথা উঁচু করার হাতিয়ার হিসেবে নিজের জাদুচর্চাকেই বেছে নেন তিনি। এরপরের ইতিহাস কেবল সামনে চলার। কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ এই গুণী জাদুশিল্পী আন্তর্জাতিক পুরস্কার না পেলেও বহু জাতীয় পুরস্কার যেমন বাংলাদেশ জাদুকর পরিষদ,সিটি ম্যাজিক সার্কেল,magician’s ফেডারেশন, বাংলাদেশ ম্যাজিক ফেডারেশন,ইয়ং ম্যাজিশিয়ান সোসাইটিসহ আরো অনেক জাদু সংগঠন থেকে অসংখ্য পুরস্কার পেয়েছে সর্বশেষ যে পুরস্কারটি পেয়েছে মাননীয় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ’ ক’ ম ‘মোজাম্মেল হকের কাছ থেকে ২০১৯ সালে।এমন বহু সংখ্যক জাদু দেখিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন মানুষকে। জাদুশিল্পকে তিনি সব রাষ্ট্রে ছড়িয়ে দিয়ে নিজের গ্রাম ও জেলাকে বিশ্বের বুকে বাংলা ও বাঙ্গালিকে গৌরবোজ্জ্বল জাতি হিসেবে পরিচিত করবেন এমন আশাই করছেন যাদুশিল্পী আলমগীর।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com