Ultimate magazine theme for WordPress.

বগুড়া মহাস্থান অস্থায়ী ক্যাম্পের পুলিশ প্রত্যাহার হুমকিতে প্রত্নসম্পদ ও জাদুঘরের নিরাপত্তা

232

 

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার ঐতিহাসিক মহাস্থানগড়ের অস্থায়ী ক্যাম্পের পুলিশ সদস্যদের প্রত্যাহার করে নেয়ায় হুমকির মুখে পড়েছে প্রত্নসম্পদ ও জাদুঘরের নিরাপত্তা।
প্রায় দুই মাস আগে এই ক্যাম্পে থেকে করোনা ও নিরাপত্তা কারণে দায়িত্বরত প্রায় ২০জন পুলিশ সদস্যদের প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়।
যদিও নতুন করে পুলিশ সদস্যদের পোস্টিং দেয়ায় কথা থাকলেও এখনও তা বাস্তবায়ন করা হয়নি।
এদিকে পুলিশ প্রত্যাহার করায় প্রত্নসম্পদ ও জাদুঘরের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হওয়ার পাশাপাশি শিবগঞ্জ -মহাস্থান আঞ্চলিক সড়কের শীলাদেবী ঘাটের কাছে ডাকাতি বাড়ার শঙ্কায় রয়েছে বলে জানান  স্থানীয়রা।


মহাস্থানগড়সহ আশ-পাশের প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন রক্ষার জন্য আদালতের আদেশ ২০১১ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি পুলিশ এই ক্যাম্পে স্থাপন করা হয়।
সেসময় মহাস্থান জাদুঘরের সামনের সড়কের একটি অস্থায়ী ঘরে পুলিশ ক্যাম্পটি স্থাপিত হয়।
এই ক্যাম্পে একজন সশস্ত্র এসআই, দু’জন হাবিলদারের নেতৃত্বে ১৭জন পুলিশ কনস্টেবলসহ মোট ২০ পুলিশ সদস্য মোতায়েন ছিল।
যাদের রাজশাহী রিজার্ভ ফোর্স(আরএফএফ) থেকে এই নিযোগ দেওয়া হতো। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, দেশের বিভিন্ন স্হানে হেফাজত নেতাকর্মীদের তান্ডব এবং করোনাকসলীন ফরিদপুরের শাল্লায় থানা ও পুলিশ ফাঁড়িতে দূর্বৃত্তের হামলার ঘটনায় মহাস্থান জাদুঘরের পুলিশ ক্যাম্পটি অরক্ষিত হয়ে পড়ে।
পরে নিরাপত্তার কারণে ক্যাম্প থেকে পুলিশ প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়।
শিবগঞ্জ -মহাস্থান আঞ্চলিক সড়কের চলাচলকারী সিএনজিচালিত অটোরিকশা চালক সোনা মিয়া প্রতিবেদক নুরনবী রহমানকে জানান, আগে এই সড়কের শিলাদেবীর ঘাটের কাছে প্রায় রাতেই গণডাকাতি ও ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটতো।

কিন্তু জাদুঘরের পাশে পুলিশ ক্যাম্প স্থাপনের পর ডাকাতির ঘটনাগুলো কমে যায়।
এখন এই ক্যাম্পে পুলিশ না থাকায় আবারও ডাকাতি -ছিনতাই বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।
মহাস্থান জাদুঘরের কাস্টডিয়ান রাজিয়া সুলতানা বলেন ঐতিহাসিক মহাস্থান গড়ের প্রত্নতত্ত্বিক নিদর্শন রক্ষায় জন্য হাইকোটের আদেশ সেসময় পুলিশ ক্যাম্পটি স্থাপন করা হয়।
বর্তমানে ক্যাম্প থেকে পুলিশ প্রত্যাহারের বিষয়ে তাদের কিছু জানানো হয়নি।
তবে খোঁজনিয়ে জানা গেছে করোনার প্রভাব বেড়ে যাওয়ার ক্যাম্পে থেকে পুলিশ প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে।
সেখানে নতুন করে পুলিশ সদস্যদের পদায়ন করার জন্য পুলিশ বিভাগকে জানানো হয়েছে বলে ও উল্লেখ করেন তিনি। তিনি আরও বলেন প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন রক্ষা এবং পর্যটকদের নিরাপত্তার জন্য এখানে একটি স্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের প্রযোজন।
এব্যাপারে শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ সিরাজুল ইসলাম বলেন করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার ক্যাম্পের পুলিশ প্রত্যাহার করা হয়েছে।
তবে অল্প দিনের মধ্যেই পুলিশ সদস্যরা ক্যাম্পে ফিরবেন।
বগুড়া পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা এ প্রসঙ্গে বলেন সাময়িকভাবে ক্যাম্পের পুলিশ সদস্যদের প্রতাহার করে নেওয়া হয়েছে। শিগগিরই অস্থায়ী ওই ক্যাম্পে নতুন সদস্যদের পদায়ন করা হবে।

 

নিজস্ব প্রতিবেদক দৈনিক মহাস্থান ডটকম

Leave A Reply

Your email address will not be published.

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com